রন্তিদেব সেনগুপ্ত

১৯৫৮ সালের ২৫ ডিসেম্বর উত্তর কলকাতায় জন্ম। পারিবারিক সূত্রে খুব অল্পবয়স থেকেই রাজনীতির প্রতি আগ্রহী। ছাত্রজীবনে সক্রিয় রাজনীতিতে জড়িত ছিলেন। পড়াশুনা সেন্ট পলস স্কুল ও গোয়েঙ্কা কলেজ অব কমার্স। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাংবাদিকতায় এম এ।
সাংবাদিকতা পেশায় দীর্ঘ ৩০ বছরের অভিজ্ঞতা। সাংবাদিকতারজীবন শুরু পরিবর্তন পত্রিকায়  এডিটোরিয়াল অ্যাসিসট্যান্টহিসাবে। পরবর্তীকালে বর্তমান সংবাদপত্রে যোগদান এবং ক্রমেসেই পত্রিকার মুখ্য সাংবাদিক হিসাবে দীর্ঘদিন দায়িত্ব পালন। এখনপত্রিকাগোষ্ঠীর সাপ্তাহিক পত্রিকা সাপ্তাহিক বর্তমান- এর সম্পাদক।পাশাপাশি বর্তমান পত্রিকার নিয়মিত রাজনৈতিক কলম লেখক
রাজনৈতিক
বিশ্লেষক। রাজনৈতিক সাংবাদিকতায় স্পেশালাইজেশন। সাংবাদিকতার সূত্রেই দেশ- বিদেশ ভ্রমন এবং বহু বিশিষ্টজনের সঙ্গে ব্যক্তিগত পরিচিতি। 
সাংবাদিকতা সূত্রেই বেশ কিছু স্বীকৃতি এবং পুরস্কার লাভ। তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য কে সি কুলিশ ইন্টারন্যাশনাল অ্যাওয়ার্ড ফরইনভেস্টিগেটিভ জার্নলিজম, আই আই পি এম অ্যাওয়ার্ড ফরএক্সেলেন্স ইন জার্নলিজম, কেন্দ্রীয় সরকারের নিয়ন্ত্রনাধীনবিবেকানন্দ স্পোর্টস অ্যাকাডেমি প্রদত্ত প্রাইড অব দ্য রিজিয়নঅ্যাওয়ার্ড, বিবেক অ্যাওয়ার্ড, মাইকেল মধুসূদন অ্যাকাডেমি প্রদত্ত
মাইকেল মধুসূদন অ্যাওয়ার্ড। 
প্রকাশিত গ্রন্থঃ ভগিনী নিবেদিতার জীবনের ওপর গবেষনাধর্মী গ্রন্থ ‘জ্বলিছে ধ্রুবতারা’ (প্রথম পর্ব)। এই গ্রন্থের দ্বিতীয় পর্ব যন্ত্রস্থ। নির্বাচিত রাজনৈতিক সংকলন ‘পরিবর্তনের স্বপ্ন ও স্বপ্নভঙ্গ। গদ্য সংকলন ‘চিঠিগুলি চিন্ময়ীকে’। বামপন্থী আন্দোলনের ইতিহাস ‘গায় লাল ফিকে লাল’। সম্পাদিত গ্রন্থ ‘নব সাম্রাজ্যবাদ কৃষি – শিল্প বিতর্ক’ । 
ব্যক্তিগত জীবনে রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের অনুরাগী।